Press "Enter" to skip to content

পূর্বধলায় বিকাশের মাধ্যমে প্রতারণা, থানায় অভিযোগ

পূর্বধলা (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি:
নেত্রকোণার পূর্বধলায় বিকাশের মাধ্যমে প্রতারণার শিকার হয়েছে ইসরাত জাহান ওরফে শান্ত আক্তার (২৫) নামে এক গৃহিনী। তিনি উপজেলার বৈরাটী ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামের মো. রুহুল আমীনের স্ত্রী। শনিবার দুপুরে (২৫ জানুয়ারি) সাড়ে ১২টায় নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। স্বামী মো. রুহুল আমীন পূর্বধলায় থানায় এসে প্রতিবেশি মোঃ গফুর আলীর ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (৪৫)’র নামে বিকাশে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগে জানা যায়, একজন অজ্ঞাত ব্যক্তি মোবাইল নাম্বার ০১৯০৫৭৬১৪৮৭ ও ০১৪০৮৮২০২০৭ থেকে ফোন দিয়ে ইসরাত জাহান ওরফে শান্ত আক্তারকে জানান, আপনার বিকাশ নাম্বার ০১৯১১৭৩১৭৬৯ তে টাকা ক্যাশ ইন হবেনা, আপনার পিন নাম্বার ব্লক হয়ে গেছে। আপনি যদি পিন চালু করতে ও বোনাস নিতে চান তাহলে এখনই প্রথম ধাপে ২০ হাজার ৪০০ টাকা ও দ্বিতীয় ধাপে ৮ হাজার ৬০০ টাকা মোট ২৯ হাজার পাঠাতে হবে। শান্ত আক্তার বিকাশ ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম টাকা পাঠাতে বলতে তিনি ২৯ হাজার টাকা পাঠায়। টাকাগুলো পাঠানোর সাথে সাথেই ০১৪০৩৬৮২৫৭৯ ও ০১৮৯৩১২৪২২৮ নাম্বারে প্রতারণা করে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে প্রতারক চক্রের সাথে যোগাযোগ করলে তারা মোবাইল ফোনটি বন্ধ করে দেয়।
বিকাশ ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম জানান, আমি একজন সাধারণ বিকাশ ব্যবসায়ী। প্রতিবেশি শান্ত আক্তারের কথা মতো আমি টাকা পাঠায় কিন্তু বিকাশ প্রতারণা বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা।
প্রতারণা শিকার শান্ত আক্তার জানায়, ওদের লোভনীয় অফার পেতে আমি বিকাশে টাকা দেই। লোভের কারনে আজ আমি প্রতারণার শিকার। আমার মত এমন বড় ভূল আপনারা আর কেউ কেনোদিন করবেন না । মোবাইলে বিকাশে লোভনীয় অফার মানেই প্রতারণা।
পূর্বধলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তবে সবাইকে বিকাশ প্রতারণা থেকে সচেতন থাকতে হবে।

Be Fir to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *